১০ ভিক্ষুকের পুনর্বাসনে প্রধানমন্ত্রীর উপহার তুলে দিলেন মেয়র টিটু

ভিক্ষুকদের পুনর্বাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন ও ময়মনসিংহ শহর সমাজসেবা কার্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে নগর ভবন প্রাঙ্গণে ১০ জন ভিক্ষুকের মাঝে রিকশা, গাভী, ছাগল, ক্ষুদ্র ব্যবসার জন্য ভ্যানসহ বিভিন্ন উপকরণ সামগ্রী বিতরণ করেন মসিক মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু।

জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর

সরকারের ভিক্ষুক পুনর্বাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থান কর্মসূচির আওতায় আজ বেলা সাড়ে ১২ টায় এসব বিতরণ করেন মেয়র।

এ সময় তিনি বলেন, কেউ ইচ্ছা করে ভিক্ষাকে পেশা হিসাবে নেয় না। দারিদ্র আর অসাহয়ত্ব থেকেই এর সৃষ্টি। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সকল অসহায়ের সহায়।

সমাজের সবথেকে প্রান্তিক মানুষের জন্যও তিনি ভাবেন। তিনি ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত উন্নত দেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন।

মেয়র ভিক্ষুকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের যা দেওয়া হয়েছে তা দিয়ে আয় বর্ধনমূলক কাজে যুক্ত হতে পারবেন।

আর ভিক্ষা করবেন না বলে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তা প্রচেষ্টার মাধ্যমে রক্ষা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর এ সহায়তার যথাযথ ব্যবহার করতে হবে।

উল্লেখ্য, শহর সমাজসেবা কার্যালয় কতৃক তালিকাভুক্ত ও যাচাই-বাছাইকৃত ভিক্ষুকদের মধ্য থেকে সিটি কর্পোরেশন বাস্তবায়ন কমিটি সাক্ষাৎকার গ্রহণের মাধ্যমে এ ভিক্ষুকদের বাছাই করেছে।

পুনর্বাসন সামগ্রী গ্রহণকারী ভিক্ষুকগণ ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের গোয়াইলকান্দী, কাঁচিঝুলি, বৈশাখাই, বাঁশবাড়ি কলোনি, সুতিয়াখালী, চরপাড়া বাইলেন, কালিবাড়ি ও থানাঘাট বালুচরের বাসিন্দা।

পুনর্বাসন সামগ্রী প্রদানকালে মসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইউসুফ আলী, ময়মনসিংহ সমাজসেবা কার্যালয়ের বিভাগীয় পরিচালক তাহমিনা আক্তার, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক আব্দুল কাইয়ুম, মসিকের পরিবহন মহাব্যবস্থাপক শিউলি হরি, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা রাফিকুজ্জামান, মসিকের ০৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফারুক হাসান, ০৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শীতল সরকার, ৩০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ আবুল বাশার সহ অন্যান্য কাউন্সিলরবৃন্দ, শহর সমাজসেবা কর্মকর্তা ফাতেমা তুজ জোহরা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন :
জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর

One thought on “১০ ভিক্ষুকের পুনর্বাসনে প্রধানমন্ত্রীর উপহার তুলে দিলেন মেয়র টিটু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *